গুড়া কৃমির ঔষধের নাম | কৃমির ঔষধ কোনটা ভালো

জেনে নিন গুড়া কৃমির ঔষধের নাম সম্পর্কে

ঘন ঘন কৃমি হওয়ার কারণ

  • অস্বাস্থ্যকর স্যানিটেশন ব্যবস্থা
  • দূষিত পানি করা
  • কাঁচা ফলমূল না ধুয়ে খাওয়া 
  • অপরিচ্ছন্ন গৃহস্থালি হলে
  • হাতের বড় নখ হলে
  • শৌচাগার শেষে হাত সাবান দিয়ে না ধোয়া
  • খাবার তৈরি বা গ্রহণের আগে সাবান দিয়ে হাত না ধোয়া
  • কাঁচা ফলমূল যথেষ্ট রান্না না করা
  • খালি পায়ে শৌচাগারে যাওয়া 
  • মাটিতে খালি পায়ে হাঁটা

গুড়া কৃমির লক্ষণ

  • বমি বমি ভাব
  • পেট ব্যথা
  • পেট মোটা বা ভারি হওয়া
  • খাবারে অরুচি
  • মুখে থুথু ওঠা
  • পায়খানার রাস্তার পাশে চুলকানি হতে পারে

কৃমি দূর করার ঘরোয়া ৬টি উপায়

  1. মধু ও কাঁচা পেঁপে: মধু ও কাঁচা পেঁপে খেলে পেটের কৃমি দূর হয়ে যাবে। আপনাকে এক গ্লাস হালকা গরম দুধের সঙ্গে এক চা চামচ মধু ও কাঁচা পেঁপের রস মিশিয়ে মিশ্রণ তৈরি করে খেতে হবে। আপনি একটানা সাত দিন খেলে ফলাফল দেখতে পাবেন।
  2. করলা: করলা আপনি তরকারি কিংবা ভাঁজি হিসেবে খেতে পারেন। এটি খেলে পেটের কৃমি দূর হয়ে যাবে।
  3. লবঙ্গ: কৃমি দূর করতে লবঙ্গ খেতে পারেন। এটি পেটে থাকা কৃমি ও প্যারাসাইট দূর করতে পারে। এক কাপ পানিতে ৩-৪টি লবঙ্গ ফুটিয়ে সারাদিন অল্প অল্প করে পান করুন। এতে কৃমির ডিমও দূর হয়ে যাবে। 
  4. কাঁচা হলুদ: কাঁচা হলুদ কৃমি তাড়াতে কার্যকরী। প্রতিদিন খালি পেটে এক টুকরো কাঁচা হলুদ চিবিয়ে খেলে কৃমি দূর হবে। এতে রয়েছে জীবানুনাশক ও প্রদাহবিরোধী উপাদান। 
  5. নিমপাতা: এটিও কৃমি দূর করাতে ওস্তাদ। প্রতিদিন সকালে আপনি খালি পেটে কাঁচা নিম পাতা মিশ্রণ করে খেতে পারেন। এতে কৃমি নির্মূল হয়ে যাবে। তবে নিয়মিত খেতে হবে। 
  6. কুমড়ো বীজ: নিয়মিত কুমড়ো বীজ খেলে কৃমি সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে পারেন। এজন্য সমপরিমাণ নারকেল দুধ ও পানি মিশিয়ে নিন। তারপর এক চা চামচ ভেজে গুঁড়া মিশিয়ে পান করুন। এতে কৃমি নির্মূল হয়ে যাবে। তবে নিয়মিত খেতে হবে।

গুড়া কৃমির ঔষধের নাম

  • সোলাস ট্যাবলেট 
  • সোলাস সিরাপ (বাচ্চাদের জন্য)
  • Alben-Ds Tablet

কৃমির ঔষধ কোনটা ভালো?

Alben-Ds Tablet টি কৃমির ভালো ঔষধ।

আরও পড়ুন : শিশুদের সোলাস সিরাপ খাওয়ার নিয়ম

কৃমি হলে কি কি সমস্যা হয়?

  • বমি বমি ভাব
  • পেট ব্যথা
  • পেট মোটা বা ভারি হওয়া
  • খাবারে অরুচি
  • মুখে থুথু ওঠা
  • পায়খানার রাস্তার পাশে চুলকানি হতে পারে
Next Post Previous Post